যুবওক্রীড়াবিষয়কমন্ত্রক

যুব বিষয়ক মন্ত্রকের বর্ষশেষ পর্যালোচনা : ২০১৮

Posted On: 11 DEC 2018 5:51PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ১১ ডিসেম্বর, ২০১

 

দেশের জনসংখ্যার সবচেয়ে উজ্জ্বল প্রতিনিধিরা হলেন তরুণ সম্প্রদায়। যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক মন্ত্রকের অধীন যুব বিষয়ক দপ্তরের জাতীয় যুব সশক্তিকরণ কার্যক্রম আরওয়াইএসকে-র মধ্য দিয়ে তরুণরা আশার নতুন আলো দেখিয়েছেন। যুব দপ্তর গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের ফলে দেশ গঠনে যুব সম্প্রদায় আরও বেশি মাত্রায় অংশ নিয়েছেন।

 

যুব দপ্তরের প্রকল্পগুলির পুনর্গঠন

 

যুব দপ্তর তিনটি ভাগে তাদের প্রকল্পগুলিকে পুনর্গঠন করেছে। সেগুলি নিম্নরূপ –

 

১) জাতীয় যুব সশক্তিকরণ কার্যক্রমের আওতায় ৮টি প্রকল্পকে এক ছাতার নীচে নিয়ে আসা হয়েছে।

২) জাতীয় পরিষেবা প্রকল্প (এনএসএস)

৩) যুব উন্নয়নের জন্য রাজীব গান্ধী জাতীয় প্রতিষ্ঠান (আরজিএনআইওয়াইডি)

 

এই প্রকল্পের আওতায় ২০১৮-১৯ সালে যে সাফল্য এসেছে, সেগুলি নিম্নরূপ –

 

১) জাতীয় যুব সশক্তিকরণ কার্যক্রম (আরওয়াইএসকে)

ক) নেহরু যুব কেন্দ্র সংস্থান (এনওয়াইকেএস)

 

এই প্রকল্পে ৩৬ লক্ষ ২২ হাজার যুব নথিভুক্ত হয়েছেন। তাঁরা সারা দেশের উন্নয়নে বিশেষভাবে কাজ করছে। এনওয়াইকেএস চলতি বছরে যে উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপগুলি নিয়েছে, সেগুলি হ’ল –

 

এনওয়াইকেএস স্বেচ্ছাসেবকরা ৮ লক্ষ ৪৭ হাজার গাছের চারা রোপণ করেছেন।

এনওয়াইকেএস স্বেচ্ছাসেবকরা ১৩ হাজার ৪৩২ ইউনিট রক্তদান করেছেন।

দক্ষতা উন্নয়ন কর্মসূচির আওতায় বৃত্তি শিক্ষার জন্য ৫১ হাজার ৫০৮ জন তরুণকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে।

ব্লকস্তরে ১ লক্ষ ৭৭ হাজার ৬৮৮ জন তরুণকে নিয়ে ১ হাজার ৩৩৬টি ক্রীড়া প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে।

জাতীয় ও আন্তর্জাতিক গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন দিন উদযাপনের জন্য ৮ হাজার ১২৬টি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে ১১ লক্ষ ৫ হাজার ১৩৬ জন তরুণ-তরুণী অংশ নেন।

২৩০টি জেলা-ভিত্তিক যুব সম্মেলন আয়োজন করা হয়।

আন্তর্জাতিক যোগ দিবস – ২১ জুন এনওয়াইকেএস – এর উদ্যোগে সারা দেশের ৩৮ হাজার ৩৫৬টি স্থানে যোগ দিবস পালন করা হয়। ২৩ লক্ষ ৬৮ হাজার তরুণ-তরুণী এতে অংশ নেয়।

স্বচ্ছতা অনুষ্ঠান – স্কুল, কলেজ ও হাসপাতাল ও প্রচুর সংখ্যক মূর্তি পরিষ্কারের জন্য এই কর্মসূচিকে ১ লক্ষ ১৫ হাজার ৪৩৭টি স্থানে ১২ লক্ষ ৭ হাজার ৬৮৬ জন তরুণ-তরুণী অংশগ্রহণ করেন।

জল সংরক্ষণ – ১৩ হাজার ৭৫৭টি সচেতনতামূলক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ৩ লক্ষ ৯ হাজার তরুণ-তরুণী এতে যোগ দেন। ২ হাজার ৪৩০টি নতুন জলাধার তৈরি করা হয়। ৩ হাজার ৪৩৭টি জলের উৎস স্থলের রক্ষণাবেক্ষণ করা হয়।

ইন্দ্রধনুষ অনুষ্ঠান – এই প্রকল্পের আওতায় পরিষেবা প্রদানকারীদের সাহায্যে ৫৯ হাজার ৯৬১ জন শিশুর টিকাকরণ করা হয়।

জাতীয় একতা দিবস বা একতার জন্য দৌড় – জাতীয় একতা দিবস ও একতার জন্য দৌড় কর্মসূচি জেলা স্তরে নেহরু যুব কেন্দ্রগুলির উদ্যোগে পালন করা হয়। ২ লক্ষ ৬ হাজারের বেশি তরুণ-তরুণী এতে অংশ নেন।

পূর্ব চম্পারণে স্বচ্ছতাই সেবা প্রচারাভিযান – বিহারের পূর্ব চম্পারণে ১৪ থেকে ২৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত জেলা নেহরু যুব কেন্দ্রের উদ্যোগে স্বচ্ছতাই সেবা প্রচারাভিযানের আয়োজন করা হয়। ৩০০ জন তরুণ-তরুণী এতে অংশ নেন। মতিঝিল পরিষ্কার, রেল স্টেশন, সড়ক ও জনসাধারণের ব্যবহৃত স্থানের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা সহ নানা কর্মসূচি পালন করা হয়।

স্বচ্ছ গঙ্গা – গঙ্গা তীরবর্তী গ্রামগুলিতে স্বচ্ছতা বিষয়ক সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য স্বচ্ছ গঙ্গা জাতীয় মিশন প্রকল্পের আওতায় এনওয়াইকেএস কাজ করছে। পশ্চিমবঙ্গ, বিহার ও উত্তরাখন্ডের ৫৩টি নির্বাচিত ব্লকের গঙ্গার তীরে বৃক্ষ রোপণ সপ্তাহ পালন করা হয়। ৯ জুলাই থেকে ১৫ জুলাই পর্যন্ত আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে বন দপ্তর ও স্বচ্ছ গঙ্গা জাতীয় মিশনের সহযোগিতায় ৮২ হাজার ৮১৯টয়ি গাছের চারা রোপণ করা হয়।

এক ভারত শ্রেষ্ঠ ভারত – আন্তঃরাজ্য যুব আদান-প্রদান কর্মসূচি পালন করা হয়।

জাতীয় পোষণ অভিযান কর্মসূচি – সারা দেশে পোষণ অভিযান কর্মসূচি বাস্তবায়নের জন্য এনওয়াইকেএস হচ্ছে বিশেষ সহযোগী। গর্ভাবস্থাকালীন সুরক্ষা, বিবাহের সঠিক বয়স, শিশুর যত্ন, টিকাকরণ, স্তনপান সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে সম্মেলন, আলোচনা, বিশেষজ্ঞদের বক্তৃতা সহ নানান কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। এছাড়াও, জনসভা, দৌড়, মিছিল বা সাইকেল যাত্রারও আয়োজন করা হয়। এই কর্মসূচি যথাযথ রূপায়ণের জন্য এনওয়াইকেএস এবং যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রকের ভূমিকা বিশেষ প্রশংসা পায়। মহিলা ও শিশু উন্নয়ন মন্ত্রক এই কাজের জন্য পুরষ্কারও প্রদান করে।

পরাক্রম পর্ব, ২০১৮ – এনওয়াইকেএস ২০১৮ সালের ২৮ থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রতিরক্ষা মন্ত্রক ও ভারত সরকারের উদ্যোগে দেশের বিভিন্ন স্থানে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের দ্বিতীয় বর্ষ পূর্তিতে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এনওয়াইকেএস – এর ১ হাজার ৭৮৬ জন তরুণ-তরুণী ও আধিকারিকরা এই কর্মসূচিতে অংশ নেন।

স্বাস্থ্য মেলা – নেহরু যুব কেন্দ্র সংস্থানের সহযোগিতায় হার্ট কেয়ার ফাউন্ডেশন ২৩ অক্টোবর নতুন দিল্লির তালকোটরা স্টেডিয়ামে ২৫তম যথাযথ স্বাস্থ্য মেলার আয়োজন করে। এনওয়াইকেএস – এর ১ হাজার তরুণ-তরুণী এতে অংশ নেন। বিশিষ্ট অভিনেতা, চিকিৎসক, সমাজকর্মী সহ সমাজের উচ্চ স্তরের প্রতিনিধিরা অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

আন্তর্জাতিক সহযোগিতা – আন্তর্জাতিক যুব আদান-প্রদান কর্মসূচির আওতায় তরুণদের উন্নয়নে ভারতীয় যুবসম্প্রদায় বেশ কয়েকটি দেশ সফর করেন। বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিরাও ভারতে আসেন। ভারতের তরুণরা নেপাল, টিউনিশিয়া, চিন, দক্ষিণ কোরিয়া, আর্জেন্টিনা, দক্ষিণ আফ্রিকা, কম্বোডিয়া সফর করেন। অন্যদিকে, প্যালেস্তাইন, কিরগিজস্তান, ভিয়েতনাম, বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার তরুণ-তরুণীরা ভারতে আসেন।

যুব ও কিশোরদের উন্নয়নে জাতীয় কর্মসূচি – যুব ও কিশোরদের উন্নয়নে জাতীয় কর্মসূচির আওতায় যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রকের অন্যান্য বিভিন্ন প্রকল্পগুলিও এক ছাতার তলায় আনা হয়েছে। ২০১৮-১৯ অর্থবর্ষে সর্বভারতীয় স্তরে ৫টি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাকে আর্থিক সাহায্য দেওয়া হয়। ২০১৯ সালের ২১ জানুয়ারি উত্তর প্রদেশের বারানসীতে উদযাপিত হবে প্রবাসী ভারতীয় দিবস। ১৫ – ১৮ নভেম্বর ত্রিপুরার রাজধানী আগরতলায় ষষ্ঠ উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় যুব উৎসব আয়োজিত হয়। এ বছর তেনজিং নোরগে জাতীয় অ্যাডভেঞ্চার পুরস্কার ২০১৭-র স্থল, জল ও আকাশে উল্লেখযোগ্য অ্যাডভেঞ্চারের জন্য ১০ জনকে দেওয়া হচ্ছে।

জাতীয় পরিষেবা প্রকল্প, এনএসএস – জাতীয় পরিষেবা প্রকল্প, এনএসএস – এর ৪২ লক্ষ ৯৫৮টি শাখায় লক্ষ লক্ষ পড়ুয়া তাঁদের নাম নথিভুক্ত করেছেন। এনএসএস – এর স্বেচ্ছাসেবকরা সারা দেশে স্বচ্ছ ভারত মিশন প্রকল্পে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা নিচ্ছে। এছাড়া, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রক এবং স্বচ্ছতা ও পানীয় জল সংক্রান্ত মন্ত্রকের সহযোগিতায় চলচ্চিত্র নির্মাণ ও প্রবন্ধ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

২৭ হাজারেরও বেশি এনএসএস স্বেচ্ছাসেবক স্বচ্ছ ভারত গ্রীষ্মকালীন কর্মসূচিতে অংশ নেন।

আন্তর্জাতিক যোগ দিবসে সারা দেশে বিভিন্ন যোগা কর্মসূচিতে এনএসএস স্বেচ্ছাসেবকরা অংশ নেন। রোপণ করা হয় গাছের চারা। রক্তদান শিবিরেরও আয়োজন করা হয়। এছাড়া, স্বাস্থ্য, চক্ষু ও টিকাকরণ শিবিরের আয়োজন করা হয়। এনএসএস স্বেচ্ছাসেবকরা এ বছর ৬২ লক্ষ ৫০ হাজার ঘণ্টা শ্রমদান করেন। আত্মরক্ষার কৌশল নিয়েও এনএসএস স্বেচ্ছাসেবকদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়।

 

যুব উন্নয়নে রাজীব গান্ধী জাতীয় প্রতিষ্ঠান

 

এ বছর এনএসএস আধিকারিকদের জন্য বিভিন্ন প্রশিক্ষণ কর্মসূচি, সম্মেলন, আলোচনাসভা, আয়োজন করা হয়। আধিকারিকদের পরিবেশ বিষয়ক তরুণদের স্বাস্থ্য, শান্তি রক্ষা, গ্রামীণ এলাকার যুবতীদের উদ্যোগপতি হিসাবে গড়ে তোলার বিভিন্ন পন্থা-পদ্ধতি নিয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়।

 

আন্তর্জাতিক কর্মসূচি – আন্তর্জাতিক স্তরে মালদ্বীপের তরুণ প্রতিনিধিদল ভারত সফর করেন। গ্রামোন্নয়ন উদ্যোগের প্রতিনিধিরা ১৯ দেশ সফর করেন। ভারত ও শ্রীলঙ্কার মধ্যে তরুণদের আদান-প্রদান হয় লিঙ্গ সাম্য ও উন্নয়ন বিষয়ক জাতীয় স্তরের সম্মেলন আয়োজিত হয়।

অন্যান্য সাফল্য – বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও প্রতিষ্ঠানের ১৮টি বড় গবেষণা প্রকল্প ও ৮টি ছোট গবেষণা প্রকল্পে অর্থ সাহায্য দিয়েছে আরএনওয়াইআইডি। ২০১৭ – ১৮ এবং ২০১৮ - ১৯ শিক্ষা কর্মসূচিতে ১৮২ জন পড়ুয়ার নাম নথিভুক্ত করা হয়। ফ্যাশন ডিজাইন, রিটেল সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে। সহযোগিতা বাড়ানোর জন্য উদ্ভাবন ও উদ্যোগপতিদের জন্য একটি বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়।

 

SSS/PM/SB



(Release ID: 1555526) Visitor Counter : 11