নির্বাচনকমিশন

সোশাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মগুলির সঙ্গে নির্বাচন কমিশনের বৈঠক ; নির্বাচনী বিধি সংক্রান্ত নিয়মাবলী প্রণয়নের ব্যাপারে সম্মতি

Posted On: 20 MAR 2019 5:39PM by PIB Kolkata

কলকাতা, ১৯ মার্চ, ২০১৯

 

    আসন্ন সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের প্রেক্ষিতে সোশাল মিডিয়ার ব্যবহার নিয়ে ভারতের নির্বাচন কমিশন বিভিন্ন সোশাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম তথা ভারতের ইন্টারনেট ও মোবাইল অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিনিধিদের সঙ্গে আজ বৈঠক করে।

 

    বৈঠকে মুখ্য নির্বাচন কমিশনার শ্রী সুনীল আরোরা নির্বাচনী আদর্শ আচরণবিধিকে এক অভিনব ও ঐতিহাসিক ব্যবস্হা হিসেবে ব্যাখ্যা করে বলেন, নির্বাচনী নির্ঘন্ট ঘোষনার দিন থেকে সমগ্র প্রক্রিয়া শেষ না হওয়া পর্যন্ত সমস্ত রাজনৈতিক দল এবং প্রতিষ্ঠান এই বিধি মেনে চলবে। বিভিন্ন রাজনৈতিক দল এবং নির্বাচন কমিশনের মধ্যে পারস্পরিক সম্মতির প্রেক্ষিতেই এই আচরণবিধি। শ্রী আরোরা সোশাল মিডিয়া সংগঠনগুলিকেও আসন্ন লোকসভা নির্বাচন তথা দীর্ঘমেয়াদী ভিত্তিতে মেনে চলার জন্য একই ধরনের বিধি অবিলম্বে প্রণয়নের পরামর্শ দেন।

 

    নির্বাচন কমিশনার শ্রী অশোক লাভাসা সোশাল মিডিয়ার সঙ্গে যুক্ত মাধ্যমগুলির ভূমিকা প্রণয়নের ব্যাপারে আজকের বৈঠকে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে বলে জানান। তিনি বলেন, সংযত থাকার মানসিকতা সভ্য নাগরিক সমাজগুলির হলমার্ক স্বরুপ। এই মানসিকতা নিয়ন্ত্রণমূলক ব্যবস্হা হিসেবে কাজ করে থাকে।

 

    নির্বাচন কমিশন নৈতিকতা বজায় রেখে সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচন পরিচালনায় অঙ্গিকারবদ্ধ জানিয়ে জনপ্রতিনিধিদের জানান, নির্বাচন সংক্রান্ত তথ্য প্রচারে সোশাল মিডিয়াগুলি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। বিভ্রান্তি দূর করার ক্ষেত্রেও এ ধরনের গণ-মাধ্যমগুলির ভূমিকাকে কখনই উপেক্ষা করে যায় না। তিনি আরও বলেন, সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচনের উদ্দেশ্যগুলি পূরণে সোশাল মিডিয়াগুলির সক্রিয় অংশগ্রহণ নির্বাচন কমিশনকে ব্যাপকভাবে সাহায্য করবে।

 

    বৈঠকে রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন খাতে ব্যয়ের ক্ষেত্রে আগাম সংশাপত্র দেওয়া এবং স্বচ্ছতা বজায় রাখার ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ গ্রহণ ব্যবস্হা গড়ে তোলার বিষয় নিয়েও আলোচনা হয়। এছাড়াও, সোশাল মিডিয়ার মাধ্যমে ১৯৫১ সালের জনপ্রতিনিধিত্ব আইনের ১২৬ নম্বর ধারা লঙ্ঘনের ক্ষেত্রে এবং সোশাল মিডিয়ার অপব্যবহার রুখতে এই ধরনের মাধ্যমগুলির জন্য এক কার্যকরী ব্যবস্হা প্রণয়নের ওপরেও বৈঠকে জোর দেওয়া হয়।

 

    কমিশনের আজকের বৈঠকে ভারতের ইন্টারনেট ও মোবাইল অ্যাসোসিয়েশন ছাড়াও ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ, টুইটার, গুগল, শেয়ার চ্যাট, টিকটক এবং বিগো টিভির প্রতিনিধিরা অংশ নেন। বৈঠকে সোশাল মিডিয়াগুলি আগামীকাল সন্ধ্যে নাগাদ নির্বাচনী নৈতিকতা বিধি কার্যকর করার ব্যাপারে সম্মত হয়েছে।

 

 

CG/BD/NS



(Release ID: 1569183) Visitor Counter : 18